Image Not Found!
ঢাকা   ১৪ এপ্রিল ২০২১ | ১ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সর্বশেষ সংবাদ

  টঙ্গীবাড়িতে প্রতারক চক্রের তিন সদস্য আটক। (2)        চাঁদ দেখা গেছে আগামীকাল বুধবার থেকে রোজা (2)        নকলায় হাজারধিক মাস্ক ও সাবান বিতরণ করলেন 'প্রস্ফুটিত শেরপুর' ফেইসবুক গ্রুপ (95)        জরুরী প্রয়োজনে যাতায়াতের নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ পুলিশের উদ্যোগে চালু হয়েছে মুভমেন্ট পাস (3)        খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল, ইতালী শাখা (4)        আজ বিকেল তিনটা পর্যন্ত টাকা জমা ও উত্তোলন করতে পারবেন (2)        ইতালিতে প্রবাসী নারীদের আয়োজনে নারী নেত্রী মেহেনাস তাব্বাসুম শেলির তত্বাবধায়নে রোমের বিভিন্ন স্হানে বৈশাখ উদযাপন (4)        এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউনে যা বন্ধ থাকবে জেনে নিন (3)        রাজধানী ছাড়তে শুরু করেছে নিম্ন আয়ের মানুষ (2)        দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড (2)      

সারাদেশে মাদক নিরাময় কেন্দ্র পরিদর্শনে নামছে নারকোটিক্স

 নিজস্ব প্রতিবেদক : মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রগুলোর অনিয়মের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করতে যাচ্ছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর (নারকোটিক্স)। এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার সংশ্লিষ্টদের কড়া নির্দেশনা দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক। নির্দেশনা অনুযায়ী দেশব্যাপী অভিযান পরিচালনার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। আজ ১৩ নভেম্বর (শুক্রবার) সকাল থেকে একাধিক টিমের মাঠে নামার কথা রয়েছে। কোথাও কোনো অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে লাইসেন্স বাতিলসহ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। নারকোটিক্সের একাধিক সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বৃহস্পতিবার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আহসানুল জব্বার অনলাইনে জরুরি মিটিং আহ্বান করেন। ওই মিটিং থেকে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেয়া হয়। আজ থেকে শুরু হওয়া সাঁড়াশি অভিযান মহাপরিচালক নিজেই মনিটরিং করবেন বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, রাজধানীতে মোট ১০৫টি নিরাময় কেন্দ্র লাইসেন্সপ্রাপ্ত। এর মধ্যে হাতেগোনা ৪-৫টি প্রতিষ্ঠানে সেবার মান সন্তোষজনক। বাকিগুলোতে সেবা বলতে তেমন কিছুই নেই। এমনকি অনেক কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা ও রোগীদের ওপর নির্যাতন চালানোর প্রমাণিত অভিযোগ রয়েছে। রাজধানী ছাড়া জেলা শহরগুলোতে যেসব কেন্দ্র রয়েছে সেগুলোর অবস্থা আরও খারাপ। বহু নিরাময় কেন্দ্র মাদকাসক্তির চিকিৎসার নামে মানসিক রোগের চিকিৎসা শুরু করেছে। যথাযথ পর্যবেক্ষণের অভাবে লাইসেন্স ছাড়াই ব্যাঙের ছাতার মতো পাড়া-মহল্লায় এ ধরনের নিরাময় কেন্দ্র গজিয়ে উঠেছে।

এ বিষয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা মেট্রো উপ-অঞ্চলের উপ-পরিচালক মুকুল জ্যোতি চাকমা বলেন, লোকবলের সীমাবদ্ধতার কারণে নিরাময় কেন্দ্রগুলো যথাযথভাবে পর্যবেক্ষণ করা যায় না। এ সুযোগে অনেক প্রতিষ্ঠান নানা ধরনের অনিয়ম করে যাচ্ছে। সরেজমিন পরিদর্শন করে যে সব প্রতিষ্ঠানে অনিয়ম পাওয়া যাবে সেগুলো বন্ধ করে দেব।