Image Not Found!
ঢাকা   সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১ | ২৯ চৈত্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সর্বশেষ সংবাদ

  ইতালিতে প্রবাসী নারীদের আয়োজনে নারী নেত্রী মেহেনাস তাব্বাসুম শেলির তত্বাবধায়নে রোমের বিভিন্ন স্হানে বৈশাখ উদযাপন (4)        এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউনে যা বন্ধ থাকবে জেনে নিন (3)        রাজধানী ছাড়তে শুরু করেছে নিম্ন আয়ের মানুষ (2)        দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড (2)        হেফাজতকে জঙ্গি ঘোষণার দাবিতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্মারকলিপি (4)        প্রেম করে অন্যাত্র বিয়ে করায় পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছে প্রেমিক || (95)        বঙ্গবন্ধুর নীতি ও আদর্শকে বুকে ধারন করেই আওয়ামীলীগের রাজনীতি করি || জয়নাল আবেদীন হাজারী (95)        উন্নয়ন সহায়তায় ৫০% ভর্তুকীতে কৃষি যন্ত্রপাতি পাচ্ছেন শেরপুরের কৃষক (95)        ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী প্রিন্স ফিলিপ মারা গেছেন (4)        সাগরেরর পানিতে ভেসে এল বিশাল আকৃতির মৃত তিমি! (3)      

বিশ্বব্যাপী করোনা শনাক্তের সংখ্যা সাড়ে ৬ কোটি ছাড়াল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৫ লাখেরও বেশি মানুষ মারা গেছে। অন্যদিকে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ কোটি ৫৫ লাখ ছাড়িয়েছে।
ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ বিশ্বে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৬ কোটি ৫৫ লাখ ২৭ হাজার ৪৯৮। একই সময় নাগাদ বিশ্বে করোনায় মোট মারা গেছেন ১৫ লাখ ১১ হাজার ৭১৯ জন।
ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য বলছে, এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনা থেকে সেরে ওঠা মানুষের সংখ্যা ৪ কোটি ৫৩ লাখ ৭০ হাজার ৮০৫।
বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৪৫ লাখ ৩৫ হাজার ১৯৬। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ২ লাখ ৮২ হাজার ৮২৯ জন।
ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান দ্বিতীয়। ভারতে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৯৫ লাখ ৭১ হাজার ৭৮০। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৩৯ হাজার ২২৭ জন।
ব্রাজিল আছে তৃতীয় অবস্থানে। ব্রাজিলে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৬৪ লাখ ৮৭ হাজার ৫১৬। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৭৫ হাজার ৩০৭ জন।
তালিকায় রাশিয়ার অবস্থান চতুর্থ। ফ্রান্স পঞ্চম। স্পেন ষষ্ঠ। যুক্তরাজ্য সপ্তম। ইতালি অষ্টম। আর্জেন্টিনা নবম। কলম্বিয়া দশম। তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ২৬তম।
গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চীনে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি। চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে।
করোনার প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ জানুয়ারি বৈশ্বিক স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গত ২ ফেব্রুয়ারি চীনের বাইরে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ফিলিপাইনে।
১১ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্ট রোগের নামকরণ করে ‘কোভিড-১৯’। গত ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বৃহস্পতিবারের তথ্য অনুযায়ী, দেশে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মোট ৪ লাখ ৭১ হাজার ৭৩৯ জনের দেহে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। মোট ৬ হাজার ৭৪৮ জনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বিবেচনায় দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। আর সুস্থ হওয়ার হার ৮২ দশমিক ৩৩ শতাংশ।
বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনার সংক্রমণ শনাক্তের কথা জানায় সরকার। এর ১০ দিনের মাথায় ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করা হয়। মাঝে দুই মাস সংক্রমণ কমতির দিকে থাকলেও নভেম্বর থেকে দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ আবার বাড়ছে।