Image Not Found!
ঢাকা   ১৪ এপ্রিল ২০২১ | ১ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সর্বশেষ সংবাদ

  টঙ্গীবাড়িতে প্রতারক চক্রের তিন সদস্য আটক। (2)        চাঁদ দেখা গেছে আগামীকাল বুধবার থেকে রোজা (2)        নকলায় হাজারধিক মাস্ক ও সাবান বিতরণ করলেন 'প্রস্ফুটিত শেরপুর' ফেইসবুক গ্রুপ (95)        জরুরী প্রয়োজনে যাতায়াতের নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ পুলিশের উদ্যোগে চালু হয়েছে মুভমেন্ট পাস (3)        খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল, ইতালী শাখা (4)        আজ বিকেল তিনটা পর্যন্ত টাকা জমা ও উত্তোলন করতে পারবেন (2)        ইতালিতে প্রবাসী নারীদের আয়োজনে নারী নেত্রী মেহেনাস তাব্বাসুম শেলির তত্বাবধায়নে রোমের বিভিন্ন স্হানে বৈশাখ উদযাপন (4)        এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউনে যা বন্ধ থাকবে জেনে নিন (3)        রাজধানী ছাড়তে শুরু করেছে নিম্ন আয়ের মানুষ (2)        দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড (2)      

বোর বীজ রোপনে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন শেরপুরের কৃষকরা

শেরপুর সংবাদদাতা : শেরপুর সদর উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের কৃষকেরা বীজতলা তৈরী ও আমন বীজ রোপনে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন । ৪ ডিসেম্বর সকালে পাকুড়িয়া ইউনিয়নের পূর্বপাড়া গ্রামের কৃষকের সাথে সাক্ষাৎ মেলে কৃষক আঃ রশিদের সাথে। তিনি জানান নিড়িবিল, দৌরুঙ্গীবিল, কেউটাবিল, গাঁওয়াবিল,, রৌওহা বিলসহ সবমিলে প্রায় ৩০ একর জমিতে নানা জাতের বীজ রোপন করছেন কৃষকেরা। আমিও আমার জমিতে উন্নতমানের ভালো ফলনশীল বীজ রোপনের জন্য খুব সকালে বীজতলা তৈয়ের করতে ক্ষেতে এসেছি। এবছর আমন চাষে মোটামুটি ভালো ফলন পেয়েছি। তাই বোর আবাদের ফলন যেন ভালো হয় সেই চিন্তা মাথায় রেখে আমি বীজ রোপন করছি।
কৃষক আজিজল জানান, বিলে খাল খনন করায় জমি চাষ আবাদের অনেক সুবিধা হলেও খালের কিছু জায়গায় ভরাট হয়ে যাওয়ায় খালগুলো সংস্কারের প্রয়োজন। কেননা হঠাৎ বৃষ্টি হলে খালের মাঝে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। যার ফলে ঐ জলাবদ্ধতার কারণে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়। নতুন করে খালগুলো সংস্কার করা হলে ক্ষতি পরিমান কিছুটা হলেও কমবে।
পাকুড়িয়া ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন মোল্লার সাথে মোবাইলে উন্নতমানের বীজের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, গত ৩ নভেম্বর পাকুড়িয়া ইউনিয়নের কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে প্রায় ৭৫০ জন্য কৃষককে বীজ দেন । উন্নতমান হাইব্রিড জাতের ধানের বীজ দেওয়া হয়। ওইসব বীজের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা আছে। সব মিলিয়ে বোর আবাদের জন্য কনকনে শীতকে উপেক্ষা করে শেরপুরের প্রান্তিক কৃষকরা বীজতলা তৈরী ও বীজ বপন নিয়ে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন।