Image Not Found!
ঢাকা   রবিবার ২৬ জুন ২০২২ | ১২ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সর্বশেষ সংবাদ

  পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে শেরপুরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত (95)        ১১ দফা দাবিতে শেরপুর জেলা রবিদাস সম্মেলন অনুষ্ঠিত (95)        নালিতাবাড়ীতে নদীতে নৌকা ডুবে নিখোঁজ ব্যবসায়ীর ১৬ দিন পর লাশ উদ্ধার (95)        শেরপুরের শ্রীবরদীতে ৬  জনকে কুপিয়ে জখম,মা-মেয়েসহ ৩ জনের মৃত্যু (95)        নালিতাবাড়ীতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামত করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান (95)        ঝিনাইগাতীতে  পাহাড়ি ঢলে কেড়ে নিল উবায়দুলের বসৎবাড়ি   (95)        বাংলাদেশ প্রবাসী কল্যাণ পরিষদ এর নবনির্বাচিত সভাপতি শামীম, সম্পাদক ক্লার্ক (4)        শেরপুরে টিসিবি'র পণ্য বিক্রয়ের শুভ উদ্বোধন (95)        ইতালিস্হ‌ জালালাবাদ প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাবের সহযোগীতায় ত্রাণ বিতরণ (4)        ঝিনাইগাতীতে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠি (95)      
হেলথ হাসপাতালে সিজার

সিলেটসিলেটে এবার নবজাতকের মাথা কেটে ফেললেন ডাক্তার!ফেয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেটে চিকিৎসাসেবা দেয়ার ক্ষেত্রে অনেক সময় ডাক্তারদের অবহেলা বা তাড়াহুড়োর খবর প্রকাশিত হয় গণমাধ্যমে। মানুষের সেবায় নিয়োজিত ডাক্তারদের বিরুদ্ধে বার বার এমন গুরুতর অভিযোগ উঠলেও শুধরান না তারা। এবার সিজারের সময় নবজাকতের মাথাই অনেকটা কেটে ফেলেছেন আব্দুস সবুর নামের গাইনি বিভাগের সার্জারি ডাক্তার। শিশুটি এখন হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে বলে অভিভাবকদের অভিযোগ।বুধবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুরে সিলেট নগরীর ফেয়ার হেলথ হাসপাতালে এমন ঘটনা ঘটেছে।এদিকে, ডাক্তার শুধু শিশুর মাথা কেটেই অপেশাদারিত্বের পরিচয় দেননি- বিষয়টি শিশুর অভিভাবকদের কাছ থেকে লুকানোর চেষ্টা করেছেন অভিযুক্ত ডাক্তার ও ফেয়ার হেলথ হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্সরা।

জানা গেছে, সিলেট নগরীর মিরাবাজারের বাসিন্দা প্রবাসী ফারুক আহমদের স্ত্রীর শুকরিয়া বেগমের প্রসব ব্যথা উঠলে ডাক্তারের পরামর্শে নগরীর মিরের ময়দানস্থ ফেয়ার হেলথ হাসপাতালে ভর্তি হন। বুধবার দুপুরে শুকরিয়ার অপারেশন করেন গাইনি বিভাগের সার্জন ডাক্তার আব্দুস সবুর। অপারেশনের সময় তিনি নবজাতকের মাথার পেছনদিকে ছুরি দিয়ে বেশ গভীরভাবে কেটে ফেলেন। এতে শিশুর বেশ রক্তপাত হয়।জন্মের শিশুটিকে অবিরত কান্না করতে দেখে মা দুধ পান করাতে চাইলে শিশুকে দূরে সরিয়ে রাখেন ডাক্তার ও কর্তব্যরত নার্সরা।
তখন একরকম জোর করে শিশুকে মার কাছে নিয়ে আসলে মাথার পেছন দিক রক্তাক্ত দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন শুকরিয়া বেগম।প্রবাসী ফারুক আহমদের মামাতো ভাই ইজ্জাদুর রহমান মুন্না আহমদ সিলেটভিউ-কে জানান, আমাদের কাছ থেকে প্রথমে বিষয়টি লুকানোর চেষ্টা করেন ডাক্তার ও নার্সরা। পরে আমরা দেখে ফেললে আমাদেরকে তারা সান্তনা দেয়ার চেষ্টা করেন।

তিনি বলেন, শিশুর মাথার পেছন দিকে বেশ গভীরভাবে অনেকটাই কেটে গেছে। আরেকটু কেটে গেলে হয়তো ওর প্রাণটাই হুমকির পড়ে যেতো। মানুষ বাধ্য হয়ে ডাক্তারদের শরাণাপন্না হন, কিন্তু অনেক চিকিৎসক শুধু টাকাকে প্রাধান্য দিয়ে শিশু থেকে নিয়ে বৃদ্ধ- সব বয়েসি মানুষের জীবন নিয়েই ছিনিমিনি খেলেন।
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান ইজ্জাদুর রহমান মুন্না।

এ বিষয়ে ফেয়ার হেল্থ হাসপাতালে রিসিপশনিস্ট দোলন চৌধুরী বলেন, এটি একটি অনাকাঙ্খিত দুর্ঘটনা। ঘটনার পরপরই হাসপাতালের ব্যবস্থাপকসহ ঊর্ধ্বতনরা শিশুকে দেখে গেছেন এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন।

মাথা কাটার বিষয়ে গাইনি বিভাগের সার্জারি ডাক্তার অপারেশনকারী আব্দুস সবুর সিলেটভিউ-কে বলেন, এটি কোনো ঘটনাই নয়। এরকম মাঝে মাঝেই ঘটে।

শিশুর অভিভাবককে বষয়টি লুকানোর অভিযোগের বিষয়ে আব্দুস সবুর বলেন, এই অভিযোগ সত্য নয়। সামান্যই কেটেছে এবং শিশুটির অবস্থা ভালো। তারপরেও আমরা আলাদা শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে ট্রিটমেন্ট করাচ্ছি।

Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!