Image Not Found!
ঢাকা   রবিবার ২৬ জুন ২০২২ | ১২ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সর্বশেষ সংবাদ

  পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে শেরপুরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত (95)        ১১ দফা দাবিতে শেরপুর জেলা রবিদাস সম্মেলন অনুষ্ঠিত (95)        নালিতাবাড়ীতে নদীতে নৌকা ডুবে নিখোঁজ ব্যবসায়ীর ১৬ দিন পর লাশ উদ্ধার (95)        শেরপুরের শ্রীবরদীতে ৬  জনকে কুপিয়ে জখম,মা-মেয়েসহ ৩ জনের মৃত্যু (95)        নালিতাবাড়ীতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামত করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান (95)        ঝিনাইগাতীতে  পাহাড়ি ঢলে কেড়ে নিল উবায়দুলের বসৎবাড়ি   (95)        বাংলাদেশ প্রবাসী কল্যাণ পরিষদ এর নবনির্বাচিত সভাপতি শামীম, সম্পাদক ক্লার্ক (4)        শেরপুরে টিসিবি'র পণ্য বিক্রয়ের শুভ উদ্বোধন (95)        ইতালিস্হ‌ জালালাবাদ প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাবের সহযোগীতায় ত্রাণ বিতরণ (4)        ঝিনাইগাতীতে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠি (95)      
চালনা পৌরসভা নির্বাচন মেয়র প্রার্থীদের হলফনামা

বিত্তশালী মেয়র প্রার্থীদের আয় ও সম্পদ এতো কম

খুলনার চালনা পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের প্রার্থী সনত কুমার বিশ্বাসের মাসিক আয় মাত্র ২৯ হাজার টাকা। অস্থাবর সম্পদ বলতে নগদ মিলিয়ে ২০ হাজার টাকা এবং ১৫ তোলা স্বর্ণ। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আবুল খয়ের খানের প্রতি মাসে আয় ২৭ হাজার টাকা। তারও অস্থাবর সম্পদ বলতে নগদ ১ লাখ টাকা এবং কৃষি ব্যাংকে ৫ হাজার টাকার সঞ্চয়।
মেয়র প্রার্থীদের হলফনামা থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। প্রার্থীরা মনোনয়নপত্রের সাথে এসব তথ্য প্রদান করেছেন। তবে প্রার্থীরা নিজেদের এতো গরীব ভাবলেও চালনা পৌরবাসীর ধারণা ভিন্ন।
প্রার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আয় স্বতন্ত্র প্রার্থী গৌতম কুমার রায়ের। তিনি কৃষি খাত থেকে মাসে আয় করেন ১ লাখ ৩৭ হাজা টাকা। কিন্তু তার তেমন কোনো সম্পদ নেই। পৌরসভার সাবেক মেয়র অচিন্ত্য কুমার বিশ্বাসের আয় ৩৭ হাজার ৭৬২ টাকা।
চালনার নাগরিক নেতারা জানান, মেয়র পদে যারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এলাকায় তারা বিত্তশালী হিসেবেই পরিচিত। তাদের সম্পদ ও আয়ের পরিমাণ অনেক বেশি বলেই সবাই জানে এবং দেখে। হলফনামার তথ্য এবং বাস্তব তথ্য দুই রকম হওয়ায় সবার ভেতরেই প্রশ্ন তৈরি হয়েছে।
হলফনামায় দেখা গেছে, চালনার ৪ প্রার্থীর মধ্যে সবচেয়ে শিক্ষিত সাবেক মেয়র ও স্বতন্ত্র প্রার্থী অচিন্ত্য কুমার মন্ডল। তিনি পিএইচডি ডিগ্রীধারী। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী গৌতম কুমার রায় বিএসসি এবং সনত কুমার বিশ্বাস এসএসসি উত্তীর্ণ। বিএনপি প্রার্থী আবুল খয়ের খান স্বাক্ষরজ্ঞান সম্পন্ন।
মেয়র প্রার্থীদের বিরুদ্ধে বর্তমানে কোনো মামলা নেই। তবে আগে মামলা ছিল ৩ জনের বিরুদ্ধে। এর মধ্যে বর্তমান মেয়র সনত কুমার বিশ্বাসের বিরুদ্ধে একটি মারামারি ও হত্যা প্রচেষ্টা মামলা ছিলো। দুটি মামলায় তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। অতীতে অচিন্ত্য কুমার বিশ্বাসের বিরুদ্ধে মারামারি ও হত্যা প্রচেষ্টার দুটি মামলা ছিল। দুটিতেই পুলিশ চূড়ান্ত রিপোর্ট দিয়েছে। বিএনপি প্রার্থী আবুল খয়ের খানের বিরুদ্ধে বর্তমানে কোনো মামলা নেই। ইতোপূর্বে একটি মামলায় তিনি অব্যাহতি পেয়েছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী গৌতম রায়ের বিরুদ্ধে আগে ও বর্তমানে কোনো মামলা নেই।
হলফনামায় নিজেদের ব্যবসায়ী হিসেবে উল্লেখ করেছেন সনত কুমার বিশ্বাস ও আবুল খয়ের খান। গৌতম কুমার রায়ের পেশা কৃষি কাজ। অচিন্ত্য কুমার বিশ্বাস পেশায় শিক্ষক, চালনা কলেজের অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।
হফলনামায় তারা উল্লেখ করেছেন, সনত কুমার বিশ্বাসের বার্ষিক আয় সাড়ে ৩ লাখ টাকা। স্থাবর সম্পদের মধ্যে ওয়ারেশ সূত্রে পাওয়া ৪ একর কৃষি জমি এবং দশমিক ৫০ একর অকৃষি জমি তার। কৃষি ব্যাংকে ৫ লাখ টাকা ঋণ আছে সনত কুমার বিশ্বাসের। স্বতন্ত্র প্রার্থী গৌতম বিশ্বাসের ব্যাংকে ৫ হাজার টাকা এবং দশমিক ৫০ একর অকৃষি জমি ছাড়া আর কোনো সম্পদ নেই।
বিএনপি প্রার্থী আবুল খয়ের খানের কাছে নগদ ১ লাখ টাকা, ব্যাংকে ৫ হাজার টাকা, ১১ একর কৃষি জমি, দশমিক ৮৯ একর অকৃষি জমি, একটি দালান ও একটি বাড়ি রয়েছে। কৃষি ব্যাংকে তার ঋণ ৩ লাখ টাকা।
অচিন্ত্য কুমার বিশ্বাস কৃষি খাত থেকে আয় দেখিয়েছেন বছরে ৬০ হাজার টাকা। এছাড়া অন্যান্য উৎস থেকে ৩ লাখ ৯৩ হাজার ১৫৪ টাকা আয় রয়েছে তার। তার অস্থাবর সম্পদের মধ্যে রয়েছে নগদ ৫০ হাজার টাকা, ব্যাংকে জমা রয়েছে ২ লাখ টাকা। ৯ একর কৃষি জমির মালিক তিনি। ব্যাংকে তার কোনো ঋণ নেই। অন্যদিকে তার স্ত্রীর নামে রয়েছে নগদ ১ লাখ টাকা, ব্যাংকে ৮ লাখ টাকা এবং ২২ লাখ টাকার পোস্টাল আমানত।

Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!
Image Not Found!